শিবগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চেয়ারম্যানসহ আটক ৮

0

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত মঙ্গলবার দুই পক্ষের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১২টি বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ উজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ফয়েজ উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকসহ উভয় পক্ষের ৮ জনকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে দুই পক্ষই একে অন্যের বিরুদ্ধে টাকা স্বর্ণালঙ্কারসহ বিভিন্ন মালামাল লুটের অভিযোগ করেছে।
স্থানীয়রা জানায়, আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে সোমবার রাতে উজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ফয়েজ উদ্দিনসহ তার লোকজনের সাথে তর্কবিতর্ক হয় একই ইউনিয়নের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবু মেম্বারের লোকজনের। এর জের ধরে পরদিন সকালে উত্তেজনা দেখা দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিন ও হাবু মেম্বারসহ ৫ জনকে আটক করে নিয়ে আসে। পুলিশ ঘটনাস্থল ছাড়ার পর হামলা চালানো হয় উভয়পক্ষের ফয়েজ, হাবুসহ অন্তত ১২টি বাড়িতে। খবর পেয়ে বেলা ৩টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আরো ৩ জনকে আটক করে।
এদিকে এ ঘটনার পর ফয়েজ উদ্দিনের সমর্থক ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের প্রচার সম্পাদক শাহিন আলী জানান, বাবু, বাইরুল, তোতাসহ অন্তত ১৫-২০ জন হাবু মেম্বারের সমর্থকরা চেয়ারম্যানের বাড়িসহ ৯টি বাড়িতে একযোগে হামলা চালিয়ে জানালা দরজা, বৈদ্যুতিক মিটারসহ বিভিন্ন আসবাব ভেঙে লুটপাট চালায়। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে চেয়ারম্যানের বাড়ি।
অন্যদিকে এ অভিযোগ অস্বীকার করে হাবুর মেয়ে বিথী বেগম জানান, তার পিতা একজন আওয়ামী লীগের জনপ্রিয় নেতা। এতে ঈর্ষান্বিত হয়ে ফয়েজ চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে অন্তত ২০ জন লোক তাদের বাড়িসহ কয়েকটি বাড়িতে হামলা চালিয়ে লুটপাট করে।
এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সিকদার মো. মশিউর রহমান জানান, আধিপত্য বিস্তারের জেরে ভাংচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ৮ জনকে আটক করেছে। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আটক ৮ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ